মাধবদী পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে

মাধবদী পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে

আমারদেশ প্রতিদিন ডেস্ক: নরসিংদীর মাধবদী পৌর মেয়র হাজী মো: মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিকের বিরুদ্ধে তার কাছে ব্যবসায়ীদের গচ্ছিত ৮২ লাখ টাকা আত্মসাত ও তা অস্বীকারের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে মাধবদী বাজার মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের আয়োজনের সংগঠনটির সভাকক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. আনোয়ার হোসেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সম্প্রতি প্রকাশিত এক পত্রিকায় দেয়া সাক্ষাতকারে মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক তার কাছে মাধবদী বাজারের ব্যবসায়িদের গচ্ছিত ৮২ লাখ টাকা থাকার কথা অস্বীকার করে মাধবদী বাজাার মার্চেন্ট এসোসিয়েশনকে অবৈধ সংগঠন বলে অভিহিত করেন। পাশাপাশি এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমাকে কটাক্ষ করে বক্তব্য প্রদান করেন যা অনভিপ্রেত ও দুঃখজনক এসোসিয়েশন ও মাধবদী বাজারের ব্যবসায়িদের পক্ষ থেকে আমি এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।

মেয়রের অর্থ আত্মসাতের ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শিবু নাথ ও ভোলা নাথ নামে মাধবদীর দুই ব্যবসায়ী বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নগদ ও কাপড় বাবদ প্রায় ১৮ কোটি টাকা দেনা করে দেওলিয়া হয়ে যায়। পরে ব্যবসায়ীদের অভিযোগের ভিত্তিতে মাধবদী বাজার মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত এক বেঠকে মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক অভিযুুক্ত ব্যবসায়ী শিবু নাথ ও ভোলা নাথের পক্ষে ৪ কোটি টাকা এসোসিয়েশনের বরাবর বুঝিয়ে দেয়ার রফাদফা করেন। এই মর্মে মেয়র মোশাররফ শিবুু নাথ ও ভোলা নাথের মজুদে থাকা ৮২ লাখ টাকার কাপড় বিক্রি করেন। কিন্তু কাপড় বিক্রির ৮২ লাখ টাকা প্রপ্তির বিষয়টি এসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষকে শুধুমাত্র অবহিত করে তাদের কাছে জমা না দিয়ে মেয়র মোশাররফ তার কাছেই রেখে দেন।

এব্যাপারের এসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষ দফায় দফায় উক্ত টাকা বুঝিয়ে দেয়ার জন্য মেয়রকে তাগিদ দিলে তিনি দেই দিচ্ছি বলে সময়ক্ষেপন করতে থাকেন। পরবর্তীতে পাওনাদার ব্যবসায়ীদের চাপে এসোসিয়েশন কর্র্তৃপক্ষ মেয়রকে টাকা পরিশোধের জন্য চিঠি পাঠায়। চিঠির প্রেক্ষিতে মেয়র মোশাররফ ৩০ নভেম্বর ২০২০ ইং তারিখে টাকা পরিশোধ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু সময়মতো সে টাকা পরিশোধ না করে উল্টো এসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষকে অশ্রাব্য ভাষাায় গালিগালাজ করেন। পরে গত ৮ ডিসেম্বর ২০২০ ইং তারিখে জরুরী সভা ডেকে পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন ও এসোসিয়েশনে তার সদস্য পদ বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এর পরপরই পত্রিকায় দেয়া এক সাক্ষাতকারে মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক তার কাছে মাধবদী বাজারের ব্যবসায়ীদের গচ্ছিত টাকার বিষয়টি অস্বীকার করে মাধবদী বাজাার মার্র্চেন্ট এসোসিয়েশনকে অবৈধ সংগঠন বলে অভিহিত করেন। পাশাপাশি এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদককে কটাক্ষ করে বক্তব্য প্রদান করেন

মাধবদী বাজার মার্র্র্চেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র সফিউদ্দিন মোশাররফ হোসন এর এ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, স্বাধীনতাউত্তর প্রতিষ্ঠিত মাধবদীর ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন মাধবদী বাজার মাার্চেন্ট এসোসিয়েশন ব্যবসায়িদের আমানতদারি বজায় রেখে তাদের সহযোগিতায় কাজ করে যাচ্ছে সম্প্র্রতি মেয়র মোশাররফ কর্তৃক টাকা আাত্মসাতের বিষয়টি এসোসিয়েশনে ভাবমুুর্র্তি প্রশ্নের সম্মুুখিন করে তুলেছে একই সাথে উক্ত সংগঠনকে অবৈধ ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদককে কটাক্ষের তীব্র নিন্দা জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020
Design BY Soft-Mack